ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া মেয়েটি আসলে কে?

Sharing is caring!

কিছুদিন যাবৎ ফেসবুকে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। রোগাপটকা এক মেয়ে বক্তব্য দিচ্ছে। কেউ কেউ একাধিকবারও শুনছেন সেই ভিডিও। ভিডিওটি দেখে অনেকের মনেই প্রশ্ন জেগেছে, কে এই মেয়ে? কী তার পরিচয়? তবে ভার্চুয়াল জগতে সে প্রশ্ন বেশিদিন বয়ে বেড়াতে হয়নি।

ভিডিওটি দেখে একটি সাধারণ মেয়ের স্কুলের অনুষ্ঠানের একটি বক্তব্য মনে হয়। মাত্র আড়াই মিনিটের বক্তব্যে মেয়েটি কীভাবে জীবনে একটার পর একটা ইচ্ছা বিসর্জন দিয়েছে, তা বলেছে। সব শেষে বলেছে, ‘একজন সৎ, পরিশ্রমী বিবেকবান মানুষ হতে পারলেই আমি খুশি। ছেড়ে দিয়ে আমি জিতে যেতে চাই।’

rebecca-in-(1)

জানা যায়, এটি একটি পুরোনো ভিডিও। মেয়েটির নাম রেবেকা শফি। তিনি বাংলাদেশের মেয়ে। তবে এখন তিনি বিদেশে। তার ওয়েবসাইট সূত্রে জানা যায়, হার্ভার্ডে পড়াশোনা করে বর্তমানে রিসার্চ করছেন তিনি। বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করেছেন ঢাকার এই মেয়েটি

সূত্র জানায়, ঢাকার ধানমন্ডিতে তার জন্ম ও বেড়ে ওঠা। যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে, সেটি ছিল আসলে একটি বিতর্ক প্রতিযোগিতার ফাইনালের। ১৯৯৩-৯৪ সালের সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে পুরস্কার দেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী। রেবেকার বাবা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আহমেদ শফি ও মা অধ্যাপিকা সুলতানা শফি। রেবেকার বড় বোন ফারিয়াল শফিও পদার্থবিজ্ঞানের শিক্ষার্থী।

বর্তমানে রেবেকা জেনেটিকসের একজন রিসার্চ ফেলো। এনডিমিয়া নামে এক কন্যাসন্তানের মা। পদার্থবিদ্যা নিয়ে পড়তে বিদেশে পাড়ি দিয়েছিলেন। হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটিতে অ্যাস্ট্রোফিজিকস নিয়ে পিএইচডি করেন। বর্তমানে জেনেটিকস নিয়ে পোস্ট ডকটরাল রিসার্চ করছেন। হার্ভার্ডে সোয়ার্টজ ফেলোশিপ পান। নিউরোসায়েন্সের ইন্টারসেকশন নিয়ে কাজ করছেন হার্ভার্ড মেডিকেল স্কুলে।

rebecca-in-(2)

এত বছর পর নিজের ভিডিও দেখে চমকে গেছেন তিনিও। তাই তো তার ফেসবুকে লিখেছেন, ‘নিজের ১৫ বছর বয়সের ভিডিও দেখে আমি অবাক, পুরোনো দিনে ফিরে যাচ্ছি।’

About banglarmukh official

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*