বরিশালে কিশোর গ্যাং আছে তা আমি মনে করিনা : মেয়র সাদিক

Sharing is caring!

অনলাইন ডেস্ক:

বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ বলেছেন, আমার পরিবার হচ্ছে শতভাগ রাজনৈতিক পরিবার। আমি ১৫ আগস্টে মায়ের কোলে ছিলাম। ঘাতকদের গুলিতে সেদিনই মারা যেতে পারতাম। কিন্তু আপনাদের সেবা করার জন্য আল্লাহতায়ালা আমাকে বাঁচিয়ে রেখেছেন। আমি নগর পিতা নয়, একজন সেবক হিসেবে আপনাদের জন্য কাজ করতে চাই। আমি লুটপাট নয়, সেবা করার জন্য সংসারের মায়া ভুলে আপনাদের জন্য কাজ করছি। আমার মেয়াদকালিন সময়ের পর আপনারা মূল্যায়ন করবেন আমি আপনাদের জন্য কিছু করতে পেরেছি কিনা। এসময় মেয়র বলেন নবীণ ও প্রবীনদের সমন্বয়ে আগামীতে শক্তিশালী আওয়ামী লীগ গঠন করে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে আরও শক্তিশালী করা হবে । গতকাল বুধবার নগরীর নুরিয়া কিন্ডার গার্টেন স্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের ১১ ও ১২ নম্বর ওয়ার্ডের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির দেয়া বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

মেয়র বলেন নৌকা যদি থাকে তাহলে আওয়ামী লীগ থাকবে। একজন কর্মী হয়ে আমাদের সকলের কাজ হবে প্রধানমন্ত্রীর চাওয়াকে তৃণমূলে বাস্তবায়ন করা। সম্মেলনে বিপুল সংখ্যক নারীদের উপস্থিতিকে সাধুবাদ জানিয়ে মেয়র বলেন, আপনাদের এই উপস্থিতি প্রমান করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নারীরাও আজ সামনে থেকে নেতৃত্বের মর্যাদা নিয়ে দেশ, জাতির উন্নয়নে কাজ করছে। তিনি বলেন, বরিশালে কোন কিশোর গ্যাং আছে তা আমি মনে করিনা। তবে বর্তমান প্রজন্মের উদ্দেশ্যে বলবো আগে নেতাকে নয় আপনার মা-বাবা ও মুরব্বীদের সন্মান করতে শিখুন। মনে রাখতে হবে সন্মান দিলে সন্মান পাওয়া যায়। প্রয়াত মেয়র শওকত হোসেন হিরণকে স্মরন করে মেয়র বলেন, তিনি মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন, তাঁর স্ত্রী ছিলেন এমপি। আমি মন থেকে অনুভব করেছি সংগঠনে তাঁদের যে অবদান আছে তাঁর মূল্যায়ন হওয়া উচিত। তাই আমি প্রয়াতের মেয়রের বাসায় গিয়ে পরিবারের সদস্যদের খোঁজ খবর নেয়ার চেষ্ঠা করেছি।

মেয়র আক্ষেপ করে বলেন, আমাদের কোন কোন নেতা আছেন কর্মীদের চাকর ভাবেন। মনে রাখবেন সবাই কিন্তু অর্থ চায় না। ভালো ব্যবহার আশা করে। মসজিদে গিয়ে আমাদের সামনের কাতারেই বসতে হবে এ মানষিকতা থেকে আমাদের সরে আসতে হবে। ডিজিটালের সুফল আজ জনগন ভোগ করছে উল্লেখ করে মেয়র বলেন, এর যেমন উপকারিতা আছে আবার তেমনি অপকারিতাও আছে। দেখা গেছে, ইন্টারনেট অথবা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে অনেকে গুজব রটিয়ে দেওেশর মধ্যে বিশৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টির অপচেষ্ঠা চালায়। তাদের কেউ কেউ প্রচার করে দেলোয়ার হোসেন সাঈদীকে চাঁদে দেখা গেছে। আর এই সকল গুজব সহজ সরল মানুষেরা বিশ্বাসও করে। তাই সকলকে বলবো আমাদের উচিত হবে উপকারিতা গ্রহন আর অপকারিতাকে বর্জন করা। আজ সুযোগ সন্ধ্যানী হাইব্রিডরা দলের মধ্যে অণুপ্রবেশ করেছে। হাইব্রিডরা বিভিন্ন সময়ে নানা অপপ্রচার চালিয়েছে। কিন্তু তারা কোন কিছুতেই সফলকাম হতে পারেনাই।

মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ বলেন, আমি দায়িত্ব নেয়ার আগেই এ নগরী থেকে মাদক, জুয়া, হাউজিসহ সকল অপকর্ম উৎখাত করেছি। মেয়র বলেন একটি টেকসই উন্নত নগরী গড়তে আমি সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। নগরীর সকল সড়ক ৫ বছরের গ্যারান্টি দিয়ে করে দেয়া হবে।

১২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম মোস্তফা সেলিমের সভাপতিত্বে সম্মেলনে উদ্ধোধক ছিলেন বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল। প্রধান বক্তা ছিলেন বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. একেএম জাহাঙ্গীর। বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাড.আফজালুল করিম, প্যানেল মেয়র গাজী নঈমুল হোসেন লিটুসহ ওয়ার্ড নেতৃবৃন্দ ।

সম্মেলনে আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম তোতা, বরিশাল মহানগর আওয়ামী সহ-সভাপতি নিজামুল ইসলাম নিজাম, মহানগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ এবং দল সমর্থিত কাউন্সিলরবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email

About banglarmukh official

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*