ফেসবুক স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে ববি সাংবাদিককে মারধর

Sharing is caring!

ফেসবুক স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী “বরিশাল বানী’র” বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি রবিউল ইসলামকে মারধর করেন কতিপয় শিক্ষার্থী।
এ ঘটনায় বিভাগীয় প্রধান, ছাত্র উপদেষ্টা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের কাছে লিখিত অভিযোগ করে নিরাপত্তা চেয়ে দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবি জানিয়েছে ভূক্তভোগী শিক্ষার্থী ।

সহকারী প্রক্টর মো. মহিউদ্দীন সাব্বির বলেন, ফেসবুক স্ট্যাটাস কে কেন্দ্র করে কারো গায়ে হাত দেওয়া এটা কোন ভাবেই কাম‍্য নয়। যদি কারো বিরুদ্ধে লিখে থাকে তাহলে আইনগত ব‍্যবস্থা নিতে পারে। কাউকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার মানে আইন নিজের হাতে তুলে নেওয়া। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সর্বোচ্চ পদক্ষেপ নিবে বলে জানান তিনি।

গতকাল ” লিংকারস ইন বরিশাল ইউনিভার্সিটি” নামে ফেসবুক গ্রুপে “রাজনীতির সাথে যুক্ত থেকে সাংবাদিকতা কতটা যুক্তিযুক্ত?” এমন একটি বিশ্লেষণাত্বক পোস্ট দেওয়া পরে মেসেন্জারে মারার হুমকি দেয় একই বিভাগের ১ ম বর্ষের শিক্ষার্থী তারিকুল ইসলাম। এর পরিপ্রেক্ষিতে আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টায় তারিকুল ইসলামের নেতৃত্বে তার কয়েকজন বন্ধু আব্দুল আজিজ, আজম খান, রাজু ও মেহেদী (মিশাদ) ডেকে নিয়ে বেদম মারধর ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছনা করে। এর আগেও ১৮ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে তরিকুল ইসলাম ফেসবুকে দেখে নেবার হুমকি দেয়।

ভিকটিম শিক্ষার্থী রবিউল ইসলাম জানান, গতকাল ফেসবুকের একটি গ্রুপে একটি পোস্ট দেওয়া পরে মেসেঞ্জারে হুমকি দেওয়া হয়। আজকে পরীক্ষার পর ডেকে নিয়ে তারিকুল ইসলামের নেতৃত্বে আব্দুল আজিজ, আজম খান, রাজু ও মেহেদী (মিশাদ) মারধর ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে। প্রশাসনকে বিষয়টি অবহিত করেছি। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই।
এ ব‍্যাপারে অভিযুক্ত গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী তরিকুল ইসলাম বলেন, বন্ধু হিসেবে বন্ধুকে কত কথা বলা যায়। সেই হিসেবে আমরা ফেসবুকে স্ট্যাটাসটি দেয়ার বিষয়ে জিজ্ঞাসা করেছি মাত্র। কোন লাঞ্চনার ঘটনা ঘটেনি। বিষয়টি বিভাগীয় প্রধানও অবগত রয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email

About banglarmukh official

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*