ফেসবুককে ৫০০ কোটি ডলার জরিমানা করেছে যুক্তরাষ্ট্র

Sharing is caring!

অনলাইন ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ট্রেড কমিশন (এফটিসি) ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তা লঙ্ঘন করার দায়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জায়ান্ট ফেসবুককে ৫০০ কোটি ডলার জরিমানা করেছে। মার্কিন গণমাধ্যমগুলোতে বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে এই তথ্য জানানো হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে কোনো টেক জায়ান্টকে এটাই সর্বোচ্চ জরিমানা।

বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ট্রেড কমিশন (এফটিসি) এই বিষয়টির তদন্ত করছে। ফেসবুকের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকার হয়ে উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে রাজনৈতিক কাজে ব্যাবহারের জন্য জন্য ৮৭ মিলিয়ন ফেসবুক ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নিয়েছে।

সূত্রের বরাত দিয়ে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট শুক্রবারের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, এফটিসির সদস্যদের মধ্যে ৩-২ ভোটের মাধ্যমে ফেসবুকের বিরুদ্ধে এই বিশাল এবং রেকর্ড পরিমাণ জরিমানার বিষয়টি অনুমোদন দেয়া হয়।

ফেসবুক এবং এফটিসি উভয়ই বিবিসিকে বলেছে, তারা ওই প্রতিবেদন নিয়ে কোনো ধরনের মন্তব্য করবে না। ব্রিটিশ পলিটিকাল কনসালটেন্সি ফার্ম ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকার কাছে প্রায় ৯০ মিলিয়ন ফেসবুক গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য থাকার বিষয়ে গত বছরের মার্চে ফেসবুকের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে এফটিসি।

২০১১ সালের একটি চুক্তির শর্ত ভঙ্গ হওয়ার কারণেই তদন্তের কাজ শুরু করে ফেডারেল ট্রেড কমিশন(এফটিসি)। ওই চুক্তি অনুযায়ী, কোনো ফেসবুক ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য নেয়ার ক্ষেত্রে তাদেরকে বিষয়টি স্পষ্ট করে জানাতে হবে, যদি তারা সম্মতি দেয় তাহলেই কেবল তাদের তথ্য শেয়ার করা যাবে। আর সেটা না করা হলে তা হবে বেআইনি।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত বিভিন্ন ব্যক্তি গত শুক্রবার ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে বলেছে, ফেসবুককে ৫০০ কোটি ডলার জরিমানার বিষয়টি এফটিসির ৩-২ ভোটে অনুমোদন দেয়া হয়েছে। তারা বলছে, যে তিনজন জরিমানা করার পক্ষে ছিল তারা ক্ষমতাসীন দল রিপাবলিকানের এবং বিপক্ষে যারা ছিল তারা বিরোধীদল ডেমোক্র্যাটের।

সূত্রের বরাত দিয়ে মার্কিন অন্যান গণমাধ্যমেও প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। তবে এই জরিমানা চূড়ান্ত হবে বিচার বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সিভিল বিভাগের মাধ্যমে। আর তা হতে কতদিন সময় লাগবে সে সম্পর্কে নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না এখনই।

Print Friendly, PDF & Email

About banglarmukh official

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*