সাংবাদিক শিরিনের মৃত্যুর সাথে সাথে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না তার ফেসবুক আইডিটি

Sharing is caring!

নিউজ ডেস্ক ::

বরিশাল নগরীর লঞ্চঘাট এলাকার ঔষধ ব্যাবষায়ী শিরিন মেডিকেল হলের মালিক সাংবাদিক শিরিন আজ রবিবার রাত  ১০ টার দিকে মারা যান। দোকানের সামনে অসুস্থ হয়ে পরলে স্থানীয়রা তাকে দ্রুত বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিমে) হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পরে স্বজনরা তার মরদেহ নিয়ে যাওয়ার পথে পুলিশের সন্দেহ হলে লাশটি সুরাতাল রিপোর্টের জন্য আটকে রাখেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শেবাচিম হাসপাতালের পুলিশের ইনচার্জ এসআই নাজমুল হুদা।

নিহত শিরিন আক্তার (৩৪) নগরীর ব্যাপ্টিস্ট মিশন রোড এলাকার হুমায়ুনের স্ত্রী। জানা গেছে, তার নিজের মেডিসিনের দোকানে বিসাক্ত ইনকেশন পুস করে মৃত্যু হয়েছে।

মৃত্যুর আগে তিনি তার ফেসবুক থেকে পর পর দুটি লাইভ করেন। কিন্তু তার মৃত্যুর পর পর তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডি ( sherin khanom) কিছুক্ষন দেখা গেলেও পরবর্তীতে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

একটি সুত্র বলছে, তার ফেসবুক লাইভে এসে যে কথপোকথন তাতে স্থানীয়  ওয়ার্ড কাউন্সিলরসহ কয়েক ব্যবসায়ী ফেসে যেতে পারে। তাই তার ফেসবুক আইডি বন্ধ করে সেই কথপোকথন মুছে ফেলার চেষ্টা করছে।

অনেকের ধারণা শিরিনের মৃত্যুর সাথে সাথে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি কেউ নিয়ে ফেসবুক আইডি টি বন্ধ করে দিয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

About banglarmukh official

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*