আজব সিদ্ধান্ত নিল চীন, ভাইরাস আক্রান্ত বিশ হাজার মানুষকে মারতে চায়!

Sharing is caring!

সম্প্রতি প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের বিস্তারে নাকাল চীনের জনজীবন। এ ভাইরাসের বিস্তার ঘটছে বিশ্বের অন্য বেশ কয়েকটি দেশেও। এমন অবস্থায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রায় ২০ হাজার রোগীকে মেরে ফেলতে চীন সর্বোচ্চ আদালতের কাছে অনুমতি চাইছে বলে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি খবর ঘুরছে। এবি-টিসি ডটকম (ab-tc.com) নামের একেবারেই অপরিচিত একটি সংবাদমাধ্যমের এক প্রতিবেদনে অবিশ্বাস্য ওই দাবি করা হয়েছে।

তবে অনুসন্ধানে এই সংবাদমাধ্যমটির দাবির পক্ষে তেমন কোনো বিশ্বাসযোগ্য তথ্য পাওয়া যায়নি। যে কারণে বলা হচ্ছে, এই সংবাদটি একেবারেই মিথ্যা এবং আজগুবি তথ্যের ওপর করা হয়েছে।

এবি-টিসি ডটকমের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসে সংক্রমিত ২০ হাজার মানুষকে মেরে ফেলতে সর্বোচ্চ আদালতের কাছে অনুমতি চেয়েছে চীন।

প্রতিবেদনের শিরোনামে বলা হয়েছে, ভাইরাসের বিস্তার এড়াতে ২০ হাজার করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীকে মারতে আদালতের অনুমতি চেয়েছে চীন। প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, প্রাণঘাতী ভাইরাসের বিস্তারের নিয়ন্ত্রণ নিশ্চিত করার জন্য চীনের সুপ্রিম পিপলস কোর্ট এই গণহত্যার অনুমতি দেবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

অনেক ফেসবুক ব্যবহারকারী অখ্যাত নিউজপোর্টাল এবি-টিসি ডটকমের ওই প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট পোস্ট করছেন। পোস্টে বলা হচ্ছে, ২০ হাজার করোনাভাইরাস রোগীকে মেরে ফেলতে আদালতের কাছে অনুমতি চেয়েছে চীন। চীন ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজন রোগীকে মেরে ফেলেছে বলেও গুঞ্জন ছড়িয়েছে।

অনুসন্ধানে এই দাবিটি যে পুরোপুরি মিথ্যা তা নিশ্চিত হওয়া গেছে। এমনকি এবি-টিসি ডটকম নামের যে সংবাদমাধ্যমটি এই প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে; সেই সংবাদমাধ্যমটির বস্তুনিষ্ঠতা নিয়েও সন্দেহ দেখা দিয়েছে। তবে অনেক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারী এই প্রতিবেদনটি বিশ্বাসও করেছেন। এবি-টিসি ডটকমের সেই সংবাদের স্ক্রিনশট কিংবা লিঙ্ক অনেকেই ফেসবুক, টুইটার-সহ অন্যান্য মাধ্যমে শেয়ার করেছেন। এই সংবাদটির সত্যতা যাচাইয়ের জন্য আমরা গুগলে কিওয়ার্ড ধরে অনুসন্ধান করেছি। এতে এই সংবাদটি নিশ্চিত হওয়ার জন্য নির্ভরযোগ্য কোনো সূত্র পাওয়া যায়নি।

প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকে প্রতি মুহূর্তে বিশ্বগণমাধ্যমের শিরোনাম হচ্ছে চীনের নতুন এই করোনাভাইরাস। সেখানে এ ধরনের বিশাল একটি খবর বিশ্ব গণমাধ্যমের চোখ এড়িয়ে যাওয়া একেবারেই অসম্ভব। চীনের জ্যেষ্ঠ সরকারি কর্মকর্তারা বলেছেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সব রোগীকে গণ কোয়ারান্টাইন শিবিরে রাখা হয়েছে।

এই প্রতিবেদন লেখার সময় (বাংলাদেশ সময় শনিবার বিকেল ৪টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত) চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম চায়না গ্লোবাল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক (সিজিটিএন) বলছে, চীনে এখন পর্যন্ত নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৪ হাজার ৫৯৮ জন এবং মারা গেছেন ৭২৩ জন। চীনের বাইরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আক্রান্ত হয়েছেন ২৭০ জন। এছাড়া চীনে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরেছেন ২ হাজার ৫০ জন। দেশটির সরকারি কোনো গণমাধ্যমেই আক্রান্তদের মেরে ফেলতে কোনো উদ্যোগের কথা বলা হয়নি।

এই সংশ্লিষ্ট সংবাদের জন্য চীনের সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটেও কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। অতীতে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশের রেকর্ড রয়েছে এবি-টিসি ডটকম নামের ওই সংবাদমাধ্যমটির। তারকা দম্পতি কনি ফার্গুসন ও শোনা ফার্গুসনের মৃত্যুর ব্যাপারে এই সংবাদমাধ্যমটি ভুয়া প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল।

এমনিক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের টুইটের কথা বলে তারা ভুয়া টুইটও প্রকাশ করেছিল। এতে এটি নিশ্চিত হওয়া গেছে যে, এই সংবাদমাধ্যমটির ভুয়া খবর প্রকাশের অতীত ইতিহাস রয়েছে।

এবি-টিসি ডটকম (ab-tc.com) নামের ডোমেইনটির ব্যাপারে জানতে সার্চ করা হলে এই সংবাদমাধ্যমটির কোনো ঠিকানা, ই-মেইল, কিংবা অফিসের তথ্যও পাওয়া যায় না। যা সাধারণত কোনো নির্ভরযোগ্য সংবাদমাধ্যমের ক্ষেত্রে বিরল একটি বিষয়।

এই সংবাদমাধ্যমটি চীনের গুয়াংডং-ভিত্তিক হলেও এর বেশিরভাগ সংবাদই যুক্তরাষ্ট্র কেন্দ্রিক। সুতরাং এটা পরিষ্কার যে, এই সংবাদমাধ্যমটি চীনে করোনাভাইরাস আক্রান্ত ২০ হাজার রোগীকে মেরে ফেলতে আদালতের কাছে অনুমতি চাওয়ার বিষয়ে যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে; সেটি অবিশ্বাস্য এবং সন্দেহজনক।

About banglarmukh official

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*